দূরদর্শী ও মানবিক চিন্তার ইত্যাদি

দীর্ঘ তিন যুগের অধিক সময় ধরে দেশের গণমানুষের অনুষ্ঠান চলছে। বিশ্বে আর কোনো অনুষ্ঠানকে এত দীর্ঘ সময় ধরে চলতে দেখা যায়নি। ই একমাত্র অনুষ্ঠান যা সুদীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে অব্যাহত গতিতে চলেছে। বলা হয়ে থাকে, বয়স বাড়ার সাথে সাথে মানুষের রং, রূপ, যৌবন ও কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়।

সবকিছু পুরনো হয়। তবে এমনই একটি অনুষ্ঠান যার রং-রূপের পরিবর্তন এতটুকু পরিবর্তন হয়নি। বরং হিরা কাটার মতোই এর ঔজ্জ্বল্য ক্রমাগত বেড়ে চলেছে।

দ্যুতি ছড়িয়ে দিচ্ছে। অনুষ্ঠানটি স্বর্ণের মতোই। স্বর্ণে যেমন ঝং ধরে না, মরিচিকা পড়ে না, তেমনি র মানেও এতটুকু আঁচড় পড়েনি, দর্শক চাহিদাও কমেনি।

বরং চিরকালের অতিচাহিদাসম্পন্ন স্বর্ণ ও হিরার মতো হয়ে রয়েছে। একটি অনুষ্ঠান শুরুতে যতই জনপ্রিয়তা অর্জন করুক না কেন, কালপরিক্রমায় তার ক্ষয় হতে দেখা যায়। এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হয়ে রয়েছে।

ব্যতিক্রমের সাথে কোনো কিছুর তুলনা হয় না। এটি নিজস্ব বৈশিষ্ট্য নিয়েই মানুষকে বিস্মিত ও বিমুগ্ধ করে থাকে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, চিরতরুণ হয়ে মানুষের মনে বিচরণ করছে কিভাবে? সাধারণ দর্শক থেকে শুরু করে সচেতন ও মনোযোগী দর্শক যদি লক্ষ্য করেন তাহলে দেখবেন, এমনই একটি অনুষ্ঠান যার ভিত্তি আমাদের পরিবার, সমাজ, সংস্কৃতির চিরায়ত মূল্যবোধ, নীতি-নৈতিকতা।

র মূল ভিত্তিটিই সেখানে, যে ভিত্তি কখনোই দুর্বল হয় না। সময়ের পরিক্রমায় যেখানে আমাদের এসব বৈশিষ্ট্য ও মূল্যবোধের অবক্ষয় ঘটছে, সেক্ষেত্রে ‘বিবেক’ হয়ে দেদিপ্যমান হয়ে রয়েছে।

দীর্ঘ তিন যুগের অধিক সময় ধরে দেশের গণমানুষের অনুষ্ঠান ইত্যাদি চলছে। বিশ্বে আর কোনো অনুষ্ঠানকে এত দীর্ঘ সময় ধরে চলতে দেখা যায়নি। ইত্যাদিই একমাত্র অনুষ্ঠান যা সুদীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে অব্যাহত গতিতে চলেছে। বলা হয়ে থাকে, বয়স বাড়ার সাথে সাথে,
এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ